শ্রীধরা জনমঙ্গল সমিতির কার্যকরী কমিটি গঠন সম্পন্ন

মোট পড়া হয়েছে 154 

বিয়ানীবাজারের ডাকঃ

বিয়ানীবাজার উপজেলার পৌরসভাধীন ‘শ্রীধরা জনমঙ্গল সমিতি’র ২০২১-২৩ বছরের কার্যকরী কমিটি ঘোষিত হয়েছে। গতকাল (শুক্রবার) এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শ্রীধরা জনমঙ্গল সমিতির অন্যতম উপদেষ্টা, শিক্ষাবিদ ও লেখক মোঃ আতাউর রহমান এ কমিটির কর্মকর্তাগনের নাম ঘোষণা করেন।

শ্রীধরা কমিউনিটি সেন্টারে ১২ মার্চ শুক্রবার সন্ধ্যায় সমিতির উপদেষ্টা ও গ্রামের মুরব্বি হাবিবুর রহমান এর সভাপতিত্বে ও অপর উপদেষ্টা শিক্ষাবিদ নুরুল আলম সেলিম এর সঞ্চালনায় নবনির্বাচিত কার্যকরী কমিটি ঘোষণা দেয়া হয়। এ সময় অন্যান্য উপদেষ্টাগণের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হাজী রজব আলী, খছরুজ্জামান খছরু, সাবেক কমিশনার ফখরুল ইসলাম, মোঃ নুরুল আলম, সমাজসেবক নোমান আহমদ, কাউন্সিলর এমাদ আহমদ, শামছুল আলম(বিদায়ী সভাপতি)সহ গ্রামের মুরব্বীয়ান, যুবক, ছাত্র ও নানা পেশাজীবি লোকজন।

নব ঘোষিত ১৭ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরী কমিটির কর্মকর্তারা হলেনঃ সভাপতি খছরুজ্জামান খছরু, সহ-সভাপতি শহীদুল হক, সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন জুয়েল, সহ-সাধারণ সম্পাদক গুলজার আহমদ রাহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক আমীর হোসেন আলমগীর, কোষাধ্যক্ষ আমিনুল হক দিলু, শিক্ষা ও সংস্কৃতি সম্পাদক কে. এইচ. সুমন, প্রচার সম্পাদক মোঃ শামীম আহমদ, সমাজকল্যাণ সম্পাদক হাফিজ লুৎফর রহমান, সহ-সমাজকল্যাণ সম্পাদক মাহবুব আহমেদ, ক্রীড়া সম্পাদক রাশেদ খান নাবিল, সহ-ক্রীড়া সম্পাদক জাহিদ আলম রূমন, পাঠাগার সম্পাদক আয়নুল আবেদীন, সহ-পাঠাগার সম্পাদক ইকরামুল ইসলাম অমি, হিসাব রক্ষক জীবান আহমদ, কৃষি সম্পাদক ফখরুল ইসলাম মাছুম, দপ্তর সম্পাদক কাওসার আহমদ সুমন প্রমূখ।

নতুন কমিটি ঘোষণাকালে সমিতির উপদেষ্টা আতাউর রহমান বলেন, দেখতে দেখতে শ্রীধরা জনমঙ্গল সমিতি চার যূগ পেরিয়েছে। সেই পথ পরিক্রমায় সমিতি বহু সংকট মোকাবেলা করেছে। কিন্তু থেমে থাকেনি। বারবার উঠে দাঁড়িয়েছে। শ্রীধরা গ্রামের সংগঠিত শক্তি আর প্রবাসীদের নিয়ামক শক্তি মিলেই গ্রামের উন্নয়ন পরিচালিত হয়। আজকের কমিটি ঘোষণার পেছনেও তাদের সহযোগিতার কমতি নেই। তাই প্রবাসীদের প্রত্যাশা ও গ্রামবাসীর আকাঙ্খা নিয়ে সমিতির উপদেষ্টামন্ডলি ২০২১-২৩ বছরের জন্য কার্যকরী কমিটি গঠনের লক্ষ্যে গত ৫মার্চ সাধারণ সভা করে মতামত গ্রহণ করে। শ্রীধরা গ্রামে ১০ হাজার মানুষের বসবাস। আর জনমঙ্গল সমিতি হচ্ছে গ্রামের কেন্দ্রীয় ক্লাব। সেখানে বয়স, যোগ্যতা, দক্ষতা সামনে রেখে উপদেষ্টামণ্ডলি কমিটি গঠনের কঠিন কাজটি সম্পন্ন করেন। কমিটিতে নতুন ও পুরাতনের সমন্বয় দেয়া হয়েছে। সিনিওরিটি, জুনিওরিটির বেড়াজালে কমিটিতে অনেক যোগ্যতা সম্পন্নদের অন্তর্ভুক্ত করা যায়নি বলে দুঃখ প্রকাশ করে আরও বলেন, আগামী ২০২২সাল সমিতির ৫০ বছর পূর্তির বছর। দেশী ও প্রবাসীদের সমন্বয়ে আমরা ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে একটা প্রাণবন্ত অনুষ্ঠান করতে চাই। সমিতির ব্যানারে গ্রামের ঐতিহ্যের মহাকাব্য রচনা করতে চাই। সেই দায়িত্ব পালনে আপনাদের সহযোগিতা প্রয়োজন।

উল্লেখ্য, ১৯৭২ সনে এই সংগঠনটি গড়ে উঠে। এই সমিতিতে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে আজোবধি যারা বিভিন্ন সময়ে ক্লাবের সাথে জড়িত ছিলেন তাদেরকে জনমঙ্গল সমিতির পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। আর যারা বেঁচে নেই, তাদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি প্রার্থনা করা হয়। মনে রাখবেন, এই গ্রামের খ্যাতি কোন অংশে পিছিয়ে নেই। এই জনমঙ্গল সমিতি বেঁচে থাকলে আমরাও এই সমিতির ভালো কাজগুলোর মধ্যেই বেঁচে থাকব। সেই ভালো কাজগুলো করার প্রত্যাশা নিয়ে আগামিদিনের কাণ্ডারী হিসেবে সমিতির জন্য নবনির্বাচিত কার্যকরী কমিটি ঘোষণা দেয়া হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *