মাধবপুরে কুকুরের মৃত্যু নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ৫০

মোট পড়া হয়েছে 39 

হবিগঞ্জের মাধবপুরে অটোরিকশা চাপায় কুকুর মারা যাওয়ার জের ধরে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে কমপক্ষে ৫০ জন আহত হয়েছেন।

রোববার(১১ এপ্রিল) সকালে উপজেলার ঘিলাতলী ও মিঠাপুুকুর গ্রামবাসীর মধ্যে প্রায় দেড় ঘন্টা ব্যাপী এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে মাধবপুর-চুনারুঘাট সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মহসিন আল মুরাদ ও থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মিঠাপুকুর গ্রামের জনৈক অটোরিক্সা চালক ঘিলাতলী রাস্তা দিয়ে দ্রুত গতিতে যাওয়ার সময় ঘিলাতলী গ্রামের একটি কুকুরকে চাপা দিলে কুকুরটি মারা যায়। এ নিয়ে ঘিলাতলী গ্রামের সুরুজ আলী ও মিঠাপুকুর গ্রামের অটোচালক কাউছার মিয়ার মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এর জের ধরে উভয় গ্রামের মধ্যেই উত্তেজনা দেখা দেয়।

গত শুক্রবার রাতে বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য শালিস বৈঠকের দিন নির্ধারণের কথা ছিল। কিন্তু এখানে ওইদিনও দুই গ্রামবাসীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে রোববার সকালে উভয় গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় দেড় ঘন্টা ব্যাপী সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ৫০ জন আহত হয় এর মধ্যে ৬ জনের অবস্থা গুরুতর। আহতদের মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

আহতরা হলেন- মাতু মিয়া (৪৫), বাবুল মিয়া (৪৫), জসিম (২৫), মোহন (২১), আলী আজগর (৫০), কাওছার (৩০), আলাল মিয়া (৩৫), ফেরদৌস (১৭), মিলু মিয়া (৫০), আবুল মিয়া (৩০), সুহেল মিয়া (২৯), ফয়সল (২৮), মিলন (২৫), আব্দুল হক (৩০), ইদন (৫০), মাসুদ (১৫), রাজু (২০), নুরুল (২২), খালেক (২৭), তৌহিত (৫৭), আশিকুর (৩৬), হেলাল (৩৫), ইলিয়াস (৩৫), আব্দুল (৪৫), আল মিয়া (৩৮), রেনু মিয়া (৪২), মহিউদ্দিন (৫২), আনারুল (২৫), শাহিন (৩০), ফরিদ (৫০), ফয়েজ (২৪)।

মাধবপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মহসিন আল মুরাদ জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। আদাঐর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফারুক পাঠান জানান, দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষের ঘটনাটি নিষ্পত্তি করার জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

সূত্রঃসিলেটুডে২৪

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *