নীরবে-নিভৃতে প্রস্তুত হচ্ছেন সাকিব

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্ক:

সাকিব আল হাসানের ক্রিকেটার হয়ে ওঠার আঁতুড়ঘর হল বিকেএসপি। এখানেই ক্রিকেটে তার হাতেখড়ি। সেই বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই (বিকেএসপি) ফিরে গেলেন তিনি।

তার নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হবে ২৮ অক্টোবর। তার আগে বিসিবির কোনো সুযোগ-সুবিধা নিতে পারবেন না তিনি। এজন্যই বিকেএসপিকে বেছে নেয়া। সব ঠিক থাকলে শ্রীলংকা সফরে দ্বিতীয় টেস্টে খেলতে পারেন তিনি। তারই প্রস্তুতিতে নিজেকে সমর্পিত করেছেন বাংলাদেশের এই তারকা অলরাউন্ডার।

বিকেএসপিতে সাকিবের অনুশীলনের সঙ্গে আইসোলেশন পর্বও চলবে। ফাহিম ও সালাউদ্দিন দূরত্ব বজায় রাখবেন। বন্ধ হলঘরে চলছে অনুশীলন। বহির্জগতের প্রবেশাধিকার সেখানে নিষিদ্ধ। করোনার কারণে এমনিতে বিকেএসপিতে বাইরের কেউ ঢুকতে পারেন না। সেখানে মিডিয়ার জন্যও দরজা বন্ধ।

কাল ফাহিম ও সালাউদ্দিনের ফোনে ধরার চেষ্টা বারবার করেও পাওয়া যায়নি। বিকেএসপির জনসংযোগ কর্মকর্তা আশরাফুজ্জামান বলেন, ‘বাইরের কারও কাছে সাকিব সম্পর্কে কিছু বলা নিষেধ। তার নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হতে এখনও দেড় মাসের মতো বাকি রয়েছে। এই সময়ে যেন কোনো জটিলতা সৃষ্টি না হয়, সেজন্য সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে।’

গত বছর ভারতীয় জুয়াড়ির ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব আইসিসিকে না জানানোয় এক বছরের জন্য সাকিব নিষিদ্ধ হন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.