নগর চত্বরকে কামরান চত্বরে বদলে দিলেন কামরান অনুসারীরা !

মোট পড়া হয়েছে 230 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্ক:

সিলেট সিটি করপোরেশনের সামনের চত্বরটি এতোদিন সিটি পয়েন্ট নামে পরিচিত ছিলো। রোববার রাতে সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী এখানে নির্মিত নতুন স্থাপনার উদ্বোধনকালে পয়েন্টটিকে ‘নগর চত্বর’ নামকরণ করেন। তবে তার কয়েকঘন্টা পরই আজ (সোমকার) দুপুরে ওই চত্বরকে ‘কামরান চত্বর’ নামকরণ করে একটি সাইনবোর্ড টানিয়ে দিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা।

সোমবার দুপুরে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা মিছিল করে এসে ওই চত্বরে কামরান চত্বর লেখা সাইনবোর্ড টানিয়ে দেন। এসময় তারা বিক্ষোভ সমাবেশ করে অভিলম্বে সিটি করপোরেশন থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কামরান চত্বর হিসেবে ঘোষণার দাবি জানান।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা্ নগর ভবনের সামনের এই চত্বরকে সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরানের নামে নামকরণ করার দাবি অনেকদিন ধরেই জানিয়ে আসছেন। গত ১৫ জুন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান সিলেট মহানগর আওয়ামী রীগের সাবেক সভাপতা কামরান। এরপর থেকেই সিটি পয়েন্টকে কামরান চত্বর করার দাবি উঠে। তবে এমন দাবি আমলে না নিয়ে সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী সিটি পয়েন্টকে নগর চত্বর করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা।

সোমবার (২৭ জুলাই) দুপুর সোয়া ১টার দিকে মহানগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মুশফিক জায়গীরদার ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক দেবাংশু দাস মিঠুর নেতৃত্বে শতাধিক নেতাকর্মী মিছিল সহকারে এসে গতকাল উদ্বোধন হওয়া ‘নগর চত্বর’ সাইনবোর্ড খুলে ‘কামরান চত্বর’ নামের নতুন সাইনবোর্ড লাগিয়ে দেন।

এ সময় বক্তব্য রাখেন সিলেট মহানগর যুবলীগের সভাপতি আলম খান মুক্তি, সাধারণ সম্পাদক মুশফিক জায়গীরদার, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম তুষার, যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা এম. রশীদ আহমদ, গোলাম হাছান চৌধুরী সাজন, এম এইচ ইলিয়াসি দিনার, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কামরুল ইসলাম, সঞ্জয় চৌধুরী ও সাইফুল আহমদ ছফু প্রমুখ।

সিলেট সিটি করপোরেশনের দুই কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ ও আফতাব হোসেন খানও এতে সংহতি প্রকাশ করে অংশ নেন

কাউন্সিলর আজাদ তার বক্তব্যে বলেন, কামরান ভাই দীর্ঘ ৩৩ বছর এই নগরীর সেবায় জনপ্রতিনিধি হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। সিলেটের বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে তিনি সবসময় পাশে থেকেছেন। তার নামে এই চত্বরের নামকরণ সিলেটবাসীর দাবি।

তিনি আরও জানান, আগামীকাল সিটি করপোরেশনের মাসিক সভা। এই সভায় আমরা এই চত্বরের নাম কামরান চত্বর করার প্রস্তাব রাখবো এবং আশা করি সর্বসম্মতিতে এটি পাস হবে।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *