দৈত্য সাজতে মেকআপ রুমে যেতেই হলো

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্ক:

করোনায় এই সময়ে শুটিংয়ে মেকআপ নিয়ে বেশ সচেতন তারকারা। কেননা মেকআপ নিতে গেলে অবশ্যই মেকআপম্যানের কাছাকাছি যেতে হবে। থাকতে হকে বেশ খানিকটা সময়। দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব হবে না। তবে এমন পরিস্থিতিতেও ভয়ে যে তারকারা নিজেদের মেকআপ নিজেই করতেন তাঁদের এবার বাধ্য হয়ে রূপসজ্জাকারীর কাছে যেতে হলো। সম্প্রতি একটি নাটকের গল্পের প্রয়োজনে অভিনেতা ফারুক আহমেদ, মাহমুদুল ইসলাম মিঠু এবং জামিলকে ভয়ে ভয়ে মেকআপের চেয়ারে বসতে হয়েছে।

৭ পর্বের এই ঈদ নাটকের নাম ‘তিন দৈত্য’। নাটকের নাম শুনেই বোঝা যায় চরিত্রদের দৈত্য সাজতে হবে। সে জন্য প্রথম থেকেই ভাবনায় ছিলেন অভিনেতা ফারুক আহমেদ। জুন মাসের ২ তারিখ থেকে শুটিং শুরু করলেও এই অভিনেতার সাজসজ্জা রুমের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ ছিল না। যতটা পারা যায় নীরবে নিজেই নিজের সাজসজ্জা করেছেন। ভেবেছিলেন করোনাকালীন রূপসজ্জাকারীর থেকে দূরে থাকবেন। পারলেন না, এই দৈত্যের চরিত্রটির কারণে। চরিত্র রূপদানের যেতেই হলো মেকআপ রুমে। ভয়ে ভয়ে বসলেন মেকআপের চেয়ারে। ফারুক আহমেদ বলেন, ‘অনেক চেষ্টা করলাম দৈত্যের মেকআপ নিজেই নেওয়া যায় কি না কিন্তু কোনো উপায় পেলাম না। বাধ্য হয়েই মেকআপম্যানের কাছে আসতে হলো। সচেতনতা থেকেই মেকআপম্যানকে বলেছিলাম গোসল করে আসতে। পরে সে হাত-মুখ ধুয়ে ফ্রেশ হয়ে এলে তাঁকে স্যানিটাইজ করে মেকআপ নিয়েছি। মেকআপের বক্স, ব্রাশ যা যা লাগে সবই আলাদা করে ব্যবহার করেছি।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.