৫ অক্টোবর নয়, ১ অগাস্ট থেকে ইতালিতে যাওয়া যাবে

মোট পড়া হয়েছে 155 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্কঃ 

করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে বাংলাদেশ থেকে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা তিন মাস থেকে কমিয়ে এনেছে ইতালি সরকার।

৫ অক্টোবর পর্যন্ত যে নিষেধাজ্ঞা ছিল, সেটি এখন ৩১ জুলাই পর্যন্ত করেছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ১ অগাস্ট থেকে যাত্রী পরিবহনের সুযোগ দিয়ে বুধবার একটি নোটাম (নোটিস টু এয়ারমেন) জারি করেছে দেশটি।

বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতেও বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ও ১২টি দেশের সঙ্গে ৩১ জুলাই পর্যন্ত ফ্লাইট স্থগিত রেখেছে ইতালি সরকার।

বাংলাদেশ থেকে ‘ভুয়া করোনাভাইরাস নেগেটিভ’ সনদ নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে দেশি-বিদেশি গণমাধ্যমের খবর ঠিক নয় বিবৃতিতে উল্লেখ করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

সেখানে বলা হয়, ‌’সম্প্রতি ইতালিতে যাওয়া ১৬০০ বাংলাদেশি ভুয়া কোভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে যাননি। ইতালি গিয়ে যদি প্রয়োজন হয়ে পড়ে সেজন্য কিছু যাত্রী নিজস্ব উদ্যোগে কোভিড-১৯ সার্টিফিকেট নিয়ে গিয়েছিলেন। ইতালি সরকার এখন পর্যন্ত দেশটিতে ভ্রমণের ক্ষেত্রে কোভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট বহনের শর্তও আরোপ করেনি।’

তবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, বাংলাদেশ থেকে গিয়ে কিছু বাংলাদেশি কোয়ারেন্টিনের শর্ত মানেননি। ‘সম্ভবত’ তাদের কেউ কেউ সেখানে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে দিয়েছেন।

করোনাভাইরাস ছড়ানোর প্রেক্ষাপটে লাৎসিও অঞ্চলে থাকা প্রায় ৩০ হাজার বাংলাদেশির সবার কোভিড-১৯ পরীক্ষা করানো হচ্ছে বলে জানানো হয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে।

লাৎসিও এলাকায় গত এক সপ্তাহে পাঁচ হাজার জনের পরীক্ষার মধ্যে ৬৫ বাংলাদেশির শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে এতে।

গত ৭ জুলাই ঢাকা থেকে যাওয়া যাত্রীদের মধ্যে ‘উল্লেখযোগ্য সংখ্যকের’ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ায় এক সপ্তাহের জন্য বাংলাদেশ থেকে সব ধরনের ফ্লাইট বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছিল ইতালি সরকার।

পাশাপাশি কয়েক সপ্তাহে ইতালিতে পৌঁছানো পাঁচ থেকে ছয়শ বাংলাদেশিকে খুঁজে বের করে পরীক্ষা করারও উদ্যোগ নেয় দেশটির স্বাস্থ্য দপ্তর।

এর মধ্যে ইতালির রাজধানী রোম যে অঞ্চলে সেই লাৎসিও কর্তৃপক্ষ প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঢালাও করোনাভাইরাস পরীক্ষা করানোর উদ্যোগ নেয়।

রয়টার্স এর আগে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছিল, ওই অঞ্চলে নতুন করে আক্রান্তদের মধ্যে ১০ জন বাংলাদেশি।

এই প্রেক্ষাপটে ৮ জুলাই কাতার এয়ারওয়েজের দুটি ফ্লাইটে দোহা থেকে রোম ও মিলানে যাওয়া ১৬৫ বাংলাদেশিকে ঢুকতে না দিয়ে ফেরত পাঠায় দেশটির সরকার।

পরদিন এক নোটামে ঢাকা থেকে যাওয়া যাত্রীদের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ার প্রেক্ষাপটে ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে যাওয়া সবার প্রবেশ নিষিদ্ধ করে ইতালি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *