সোনাই নদীর উপর ব্রীজ না থাকায় চরম দুর্ভোগ

মোট পড়া হয়েছে 105 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্কঃ 

মৌলভীবাজারের বড়লেখার সীমান্তবর্তী শাহাবাজপুর ইউনিয়ের ভাটাউছি খেয়াঘাট এলাকায় সোনাই নদীর উপর বড়লেখা ও বিয়ানীবাজার উপজেলার পার্শবর্তী প্রায় ১০টি গ্রামের অর্ধ লক্ষ জনসাধারণ ও শিক্ষার্থীরা চরম দুর্ভোগ নিয়ে নদী পারাপার করতে হচ্ছে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীরা স্থানীয় সাংসদ মৌলভীবাজার-১ ও সিলেট-৬ নিবাচনী আসনের সাংসদ সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসি দাবি জানিয়েছেন।
সরেজমিনে বড়লেখা উপজেলার সীমান্তবর্তী শাহবাজপুর এলাকা গুরে জানা যায় ভাটাউছি, পাবিজুরিপার, বটনীপুর, গোয়ালি উজানিপাড়া ও শাহবাজপুর বাজার এলাকার ও বিয়ানীবাজার উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের তাজপুর, বড়উদা, আবঙ্গি, পাথারিপাড়া, টেকইকোনা গ্রামের প্রায় অর্ধ লক্ষ জনসাধারণ ও শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন নদী পাড়া পার করতে হয়।এ দুই উপজেলার এসব গ্রামের লোকজন তাদের একে উপরের আত্মীয়তা রয়েছে তাই তাদের দাবি সোনাই নদীর উপর ব্রীজ না থাকায় সরাসরি যেতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়।

তাদের ৭/৮কিলোমিটার ঘুরে গাড়ি দিয়ে যেতে হয় একদিকে তাদের টাকা অন্য দিকে সময়ও নষ্ট হয়। তা ছাড়া শাহবাজপুর অঞ্চলের ৫/৬ টি গ্রামের শত শত কলেজ শিক্ষার্থীরা বিয়ানীবাজার কলেজে ১শত মিটার সোনাই নদী পারাপার করে যেতে হয়। এ জন্য রীতিমত তাদের দুর্ভোগে পড়তে হয়, অনেকেরই প্রাণহানী হয়েছে নদীতে পড়ে। বিয়ানীবাজার ও বড়লেখা উপজেলার ১০টির ও বেশি গ্রামের দাবি ভাটাউছি সোনাই নদীর উপর ব্রীজ নির্মাণ করার। এখানে ব্রীজ করা হলে তাদের দুর্ভোগ লাঘব হবে। অন্যদিকে সিলেট যেতে টাকা ও সময় সাশ্রয় হবে।

উত্তর শাহাবাজপুর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ সেলিম খান ইউপি সদস্য বদরুল ইসলাম সমাজ সেবক মুজিবুর রাজা চৌধুরী, কাজি হুমায়ন রশীদ চৌধুরী সহ শিক্ষক, শিক্ষার্থী এলাকাবাসী অনেকে জানান স্থানীয় সাংসদ ও বর্তমান সরকারের বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী আলহাজ্ব শাহাব উদ্দিন গত নিবার্চন কালীন সময় ভাটাউছি এলাকায় এসে খেয়াঘাটে ব্রীজ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।

বড়লেখা উপজেলা প্রকৌশলী সূত্রে জানা যায়, ভাটাউছি খেয়াঘাটে সোনাই নদীর উপর একশত মিটার দৈর্ঘ ব্রীজটির চয়েল টেষ্ট করা হয়েছে, করোনা ভাইরাসের জন্য কার্যক্রম শিথিল রয়েছে। দ্রুত ব্রীজ নির্মাণ করে দুর্ভোগ লাঘবের জন্য তারা জন প্রতিনিধি সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *