বাউল সম্রাট শাহ আবদুল করিমের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্ক:

আমি কুলহারা কলঙ্কিনী’, ‘গাড়ি চলে না চলে না’, ‘আগে কী সুন্দর দিন কাটাইতাম’, ‘বন্দে মায়া লাগাইছে’, ‘বসন্ত বাতাসে’সহ অসংখ্য কালজয়ী গানের স্রষ্টা তিনি। আজ সেই  কিংবদন্তী শিল্পী ও সংগীত মহাজন শাহ আবদুল করিমের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী।

ভাটির পুরুষ-খ্যাত কীর্তিমান এই সঙ্গীতসাধক ২০০৯ সালের এইদিনে সিলেটের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অগণিত অনুসারী-ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান।

প্রতিবছর বাউল মহাজনের মৃত্যুবার্ষিকীতে ঝমকালো স্মরণ অনুষ্ঠানে বাউলের ভক্ত-অনুরাগীদের আগমন ঘটলেও এবার করোনার কারণে কোনো অনুষ্ঠান হচ্ছে না। তবে পারিবারিকভাবে ঘরোয়া আবহে মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হবে বলে জানা গেছে।

এব্যাপারে শাহ আবদুল করিমের একমাত্র ছেলে বাউল শাহ নূর জালাল বলেন, বাবার মৃত্যুবার্ষিকীতে প্রতিবছর দূর দূরান্ত থেকে ভক্তরা এসে বাড়িতে জড়ো হতেন। গানের ভাষায় তারা প্রার্থনা করতেন। কিন্তু এবার করোনার কারণে কোনো অনুষ্টান হচ্ছে না। আমরা ঘরোয়াভাবেই অনুষ্ঠান পালন করব।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.