গোলাপগঞ্জে গোয়ালঘরে বেঁধে পেঠালো বৃদ্ধ বাবাকে : অভিমানে বিষপান, আটক ৩

মোট পড়া হয়েছে 163 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্ক:

গোলাপগঞ্জে নিজ সন্তানদের হাতে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের শিকার হলেন ষাটোর্ধ পিতা। তিন ছেলে ও স্ত্রী মিলে বৃদ্ধকে হাত পায়ে রশি দিয়ে বেঁধে গোয়ালঘরে নিয়ে বেধে নির্যাতন চালায়। স্থানীয়রা পরে থাকে উদ্ধার করে।

পরে নিজ সন্তানদের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়ে অপমানে লজ্জায় জমির উদ্দিন আত্মহত্যার চেষ্টা করলে গুরতর আহত অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়। সোমবার সকাল ৯টায় এ নির্মম ঘটনা ঘটে গোলাপগঞ্জ উপজেলার লক্ষণাবন্দ ইউনিয়নের নওয়াইর চক গ্রামে। জমির উদ্দিন মৃত আরকান আলীর ছেলে।

এদিকে এঘটনায় পুলিশ মঙ্গলবার স্ত্রী আশকারুন বেগম(৪৫), বড় ছেলে ছালেক আহমদ(২৪), ছালিক মিয়া (২৩) ও ছোট ছেলে মানিক মিয়া(২০)এবং স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্ত্রী ও ছেলে ঋনের টাকা পরিশোধ করতে গরু বিক্রির দুইলক্ষ টাকা থেকে পাঁচহাজার টাকা চাওয়ায় এ ধরনের অমানুষিক নির্যাতন চালায় তিন ছেলে এবং স্ত্রী। পরে নির্যাতনের শিকার হয়ে অপমানিত বোধ করে আত্মহত্যার পথ বেঁচে নেন বাবা। এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ওসি মো. হারুনুর রশীদ চৌধুরী বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত মর্মান্তিক ও নিন্দনীয়। এ ঘটনায় শোনার সাথেই সাথেই পুলিশ পাঠিয়েছি ঘটনাস্থলে। পুলিশ ইতিমধ্যে ৪জনকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *