কুলাউড়া হাসপাতালে জরুরি বিভাগ ছাড়া সকল সেবা বন্ধ

মোট পড়া হয়েছে 136 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্ক:

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডেন্টাল টেকনোলজিস্ট, নার্স, ওয়ার্ডবয়সহ   নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছেন। এ পরিস্থিতিতে সংক্রমণ প্রতিরোধে মঙ্গলবার ৩০ জুন থেকে থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত হাসপাতালের জরুরি বিভাগ ছাড়া আউটডোর-ইনডোর চিকিৎসা সেবাসহ সব বিভাগ বন্ধ ঘোষণা করেছে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, ১৪ জুন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কয়েকজন কর্মচারীসহ বাইরের আরও কিছু লোকের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। মঙ্গলবার সকালে নতুন করে ১১ জনের রিপোর্ট করোনা ‘পজিটিভ’ আসে। এর মধ্যে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন ডেন্টাল টেকনোলজিস্ট, চারজন নার্স, একজন ওয়ার্ডবয়, একজন মালি ও একজন গাড়িচালক রয়েছেন। বাকি তিনজনের বাড়ি কুলাউড়া পৌর শহরের সোনাপুর, আহমেদাবাদ ও বিছনাকান্দি এলাকায়। এ ছাড়া দ্বিতীয় দফা নমুনা পরীক্ষায় (ফলোআপ) আরও দুজনের জনের ফল ‘পজিটিভ’ এসেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূরুল হক জানান, নমুনা সংগ্রহের ১৫ দিন পর ফল পাওয়া গেছে। তবে নতুন করে শনাক্ত ব্যক্তিদের শরীরে করোনার কিছু উপসর্গ ছিল বলে তাঁদের হোম আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে আগামী ৫ জুলাই পর্যন্ত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগ ছাড়া অন্য বিভাগগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ৬ জুলাই পুনরায় অন্য বিভাগগুলোর কার্যক্রম চালু হবে। তবে জরুরী বিভাগের কার্যক্রম চলবে। এসময় পুরো হাসপাতালে জীবাণুনাশক প্রয়োগ করা হবে। চিকিৎসাসেবা নিতে আসা সাধারণ মানুষের সংক্রমণ ঝুঁকি ঠেকাতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, উপজেলার উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্য সেবা চালু থাকবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *