অবশেষে দীর্ঘ ৯ বছর পর ফের চালু হচ্ছে সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট

মোট পড়া হয়েছে 186 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্কঃ 

দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর অবশেষে চালু হচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট। আজ রবিবার আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্লাইটটির উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের প্রচেষ্ঠায় প্রায় ৯ বছর পর ফের সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট চালু হওয়ার খবরে প্রবাসী সিলেটীদের মাঝেও আনন্দ বিরাজ করছে। সরাসরি ফ্লাইট চালু হলে লন্ডনগামী যাত্রীদের হয়রানি ও ভোগান্তি কমবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সিলেটের জেলা ব্যবস্থাপক শাহনেওয়াজ মজুমদার জানান, আজ রবিবার সকাল ১১টা ১৫ মিনিটে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যাত্রী নিয়ে বাংলাদেশ বিমানের ড্রিমলাইনার-৯ উড়োজাহাজটি লন্ডনের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করবে। উড়োজাহাজটির যাত্রী ধারণ ক্ষমতা ২৬০ জন। উদ্বোধনী ফ্লাইটের প্রায় সবকটি সিটই বুকড হয়ে গেছে। শাহনেওয়াজ মজুমদার আরও জানান, উদ্বোধনী ফ্লাইটের পর সিলেট-লন্ডন সরাসরি দ্বিতীয় ফ্লাইটটি যাবে ২৮ অক্টোবর। এরপর সপ্তাহে প্রতি বুধবার সিলেট থেকে সরাসরি লন্ডন ফøাইট যাবে। বিমানের ফ্লাইটটি ঢাকা থেকে যাত্রীদের নিয়ে প্রথমে ওসমানী বিমানবন্দরে আসবে, পরে সিলেট থেকে সরাসরি লন্ডনের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করবে।

সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট উদ্বোধন উপলক্ষে আজ রবিবার সকাল ৯টায় ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রেসব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়েছে। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

বিমান সূত্র জানায়, ঘন কুয়াশার অজুহাতে ২০১১ সালের ১৫ ডিসেম্বর বন্ধ হয়ে যায় সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট। এরপর রিফুয়েলিং স্টেশন না থাকার অজুহাত দেখিয়ে আর চালু হয়নি সরাসরি ফ্লাইট। এরপর ২০১৫ সালের মার্চ মাসে রিফুয়েলিং স্টেশন চালু হলেও চালু হয়নি সরাসরি বিমান চলাচল। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট ফের চালুর লক্ষ্যে কাজ শুরু করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। চলতি বছরের ১৬ জুলাই থেকে লন্ডন-সিলেট সরাসরি ফ্লাইটও বন্ধ হয়ে যায়। লন্ডন থেকে আসা সিলেটের যাত্রীদের ঢাকায় ইমিগ্রেশন করে অভ্যন্তরিণ ফ্লাইটে ব্যাগেজ নিয়ে সিলেট আসার নির্দেশ দেয়া হয়। বিমানের এমন সিদ্ধান্তের পর যুক্তরাজ্য প্রবাসীদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। তারা সেখানে নানা কর্মসূচি পালন করে লন্ডন-সিলেট সরাসরি ফ্লাইট বহাল রাখার দাবি জানান। এর প্রেক্ষিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন আন্ত:মন্ত্রণালয়ের সভা আহ্বান করে লন্ডন-সিলেট সরাসরি ফ্লাইট বহাল রাখেন।

এদিকে, সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরকে পূর্ণাঙ্গ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে রূপ দিতে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেনের চেষ্টায় প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এই প্রকল্পের আওতায় রয়েছে রানওয়ে সম্প্রসারণ, নতুন কার্গো হাউস ও নতুন টার্মিনাল ভবন নির্মাণ। রানওয়ে সম্প্রসারণের কাজ প্রায় শেষ হওয়ার পথে। আর গত ১ অক্টোবর শুরু হয়েছে নতুন টার্মিনাল ভবন নির্মাণের কাজ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে টার্মিনাল ভবনের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বক্তব্যে বলেন, ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরকে আধুনিক বিমানবন্দরে রূপান্তরিত করা হবে। এরপর এই বিমানবন্দরটি পাশর্^বর্তী দেশগুলোও ব্যবহার করতে পারবে।

সূত্রঃ সিলেটভিউ২৪ডটকম

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *