সড়ক দূর্ঘটনায় মৃত্যুর ক্ষতিপূরণ ৫ লাখ টাকা

মোট পড়া হয়েছে 114 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্কঃ   

নতুন সড়ক আইনের খসড়া বিধিমালা তৈরি। হতাহতদের বড় অংশই পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। ক্ষতিপূরণের পরিমাণ নিয়ে প্রশ্ন।

নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করার পথে প্রধান দুই বাধা সড়কে বিশৃঙ্খলা আর দুর্ঘটনা। কঠোর শাস্তি যুক্ত করে সড়ক পরিবহন আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। তবে সড়কে সেই বিশৃঙ্খলা রয়েই গেছে। গতকাল বিকেলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের শনির আখড়ায়ছবি: হাসান রাজা

সড়ক দুর্ঘটনায় কেউ আহত হলে ক্ষতিপূরণ পাবেন তিন লাখ টাকা। নিহত ব্যক্তির পরিবার পাবে পাঁচ লাখ টাকা। নতুন সড়ক আইনে ক্ষতিপূরণের এ ব্যবস্থা রেখে খসড়া বিধিমালা তৈরি করেছে সরকার। ক্ষতিপূরণের অর্থের মূল জোগানদাতা যানবাহনের মালিকেরা। সরকারও অনুদান দেবে।

নতুন সড়ক পরিবহন আইন পাস হয়েছে দুই বছর আগে। কার্যকর হয়েছে গত বছরের নভেম্বরে। আইনে ক্ষতিপূরণের কথা থাকলেও বিধিমালা তৈরি না হওয়ায় তা কার্যকর হয়নি। তবে খসড়া বিধিমালায় ক্ষতিপূরণের পরিমাণ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। নিরাপদ সড়কের দাবিতে সোচ্চার ব্যক্তিরা বলছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতদের বড় অংশই পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। তাই ক্ষতিপূরণ আরও বাড়ানো দরকার।

সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) নতুন সড়ক আইনের খসড়া বিধিমালা তৈরি করেছে। মতামতের জন্য এটি এখন আইন মন্ত্রণালয়ে আছে। ক্ষতিপূরণ দিতে আর্থিক তহবিল গঠন করতে হবে।

জানতে চাইলে বিআরটিএর চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, খসড়া বিধিমালার ওপর আইন মন্ত্রণালয়ের পর অর্থ মন্ত্রণালয়ের মতামত নিতে হবে। এরপর সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয় বিধিমালাটি অনুমোদন দেবে। এরপরই ট্রাস্টি বোর্ড গঠন এবং যানবাহনের মালিকের কাছ থেকে চাঁদা আদায় শুরু হবে। তিনি বলেন, দুর্ঘটনায় মানুষের মৃত্যু বা পঙ্গু হওয়ার ক্ষতি তো কোনোভাবেই পোষানো সম্ভব নয়। আর্থিক সহায়তা পেলে আহত ব্যক্তি ও নিহত ব্যক্তির পরিবার কিছুটা হলেও উপকার পাবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *