সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জের সাড়ে ২৩ হাজার কৃষক পাচ্ছেন দুই কোটি টাকা

মোট পড়া হয়েছে 106 

বিয়ানীবাজারের ডাকঃ  

সিলেট অঞ্চলে কৃষি পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের জন্য প্রায় দুই কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। চলতি রবি মৌসুমে মৌলভীবাজার ব্যতীত বিভাগের তিন জেলার প্রায় সাড়ে ২৩ হাজার কৃষক প্রণোদনা পাবেন। উপজেলা পর্যায়ে উপকারভোগি কৃষকদের তালিকা প্রণয়নের কাজ শিগগিরই শেষ হওয়ার কথা জানিয়েছে কৃষি বিভাগ।

জানা যায়, সিলেট অঞ্চলে চলতি রবি মৌসুমে বিভিন্ন ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষি পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মধ্যে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সরকার বিতরণ করবে সরকার। এর আওতায় সিলেট, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ এই তিন জেলার ২৩ হাজার ৬শ’ কৃষক প্রণোদনার জন্য তালিকাভুক্ত হবেন। এরমধ্যে সিলেট ১৭ হাজার, হবিগঞ্জ ৩ হাজার ৬শ’ ও সুনামগঞ্জ জেলায় ৩ হাজার কৃষক রয়েছেন। ফসলের উপকরণ বাবদ সিলেটে প্রায় এক কোটি ৪৩ লক্ষ, হবিগঞ্জে প্রায় ৩৪ লক্ষ ও সুনামগঞ্জে প্রায় ২১ লক্ষ টাকা বরাদ্দ রয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিলেট অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) কৃষিবিদ মজুমদার মো. ইলিয়াস বলেন, সিলেট প্রবাসী অধ্যুষিত এলাকা হওয়াতে অনেক জমি অনাবাদি পড়ে থাকে। সরকার চেষ্টা করছে পতিত সকল জমি আবাদের আওতায় নিয়ে আসার। এজন্য কৃষকদের উৎসাহ দিতে সরকার প্রণোদনা দিচ্ছে।

এদিকে, সরকারের প্রণোদনার আওতায় সিলেটের ৩ জেলায় ফসল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ২৩ হাজার ৬শ’ বিঘা। এর মধ্যে সিলেট জেলায় আবাদের আওতায় আসবে গম ২ হাজার ৫শ’ বিঘা, সরিষা ৫ হাজার, সূর্যমুখী ৩ হাজার, চিনাবাদাম ৫শ’, মসুর এক হাজার, খেসারী এক হাজার, টমেটো ২ হাজার ও মরিচ ২ হাজার বিঘাসহ মোট ১৭ হাজার বিঘা জমি।

একইভাবে, হবিগঞ্জ জেলায় গম ৫শ’ বিঘা, সরিষা এক হাজার, সূর্যমুখী এক হাজার, চিনাবাদাম ২শ’, মসুর ২শ’, খেসারী ২শ’, টমেটো ২শ’ ও মরিচ ৩শ’ বিঘাসহ মোট ৩ হাজার ৬শ’ বিঘা জমিতে ফসল উৎপাদন হবে। তেমনিভাবে, সুনামগঞ্জ জেলায় মোট ৩ হাজার বিঘা জমিতে ফসল উৎপাদন হওয়ার কথা রয়েছে। এরমধ্যে গম ৪শ’ বিঘা, সরিষা এক হাজার, সূর্যমুখী একশ’, চিনাবাদাম একশ’, মসুর ২শ’, খেসারী ২শ’, টমেটো ৫শ’ ও মরিচ ৫শ’ বিঘা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *