সিলেটে গ্যাস লাইনের উপর ঝুঁকিপূর্ণ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান

মোট পড়া হয়েছে 55 

সিলেটের জালালাবাদ গ্যাসের অধিককৃত ভূমিতে অবৈধভাবে সীমানা প্রাচীর, বাড়ী, দোকান কোঠা সরিয়ে নেয়ার জন্য একাধিকবার নোটিশ দেয়া হলেও কর্ণপাত করেননি মালিকরা। নোটিশের পাশাপাশি মৌখিকভাবে অবগত করা হলেও তারা তা আমলে নেননি। কোন উপায় না পেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ গ্যাস লাইনের উপর থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে জালালাবাদ গ্যাস ট্রান্সমিশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম লিমিটেড।

মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) সকাল থেকে শাহপরাণ থানাধীন ইসলামপুরে মোহাম্মদপুর আবাসিক এলাকা থেকে অভিযান শুরু করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপস্থিতিতে এ অভিযান চালানো হয়।

সূত্র জানায়, ইসলামপুরে মোহাম্মদপুর আবাসিক এলাকায় জালালাবাদ গ্যাসের কয়েক শতক ভূমি রয়েছে অধিককৃত। একাধিক ভূমি খেকো চক্র কাগজপত্র জালিয়াতি করে সরকারি ভূমি অন্যদের কাছে বিক্রি করে ফেলে। পূর্বে এসকল ভূমি যাতে কেউ ক্রয় না করেন সেজন্য সর্তক করে দেয়া হয়। তবুও অনেকে লোভে পড়ে কমদামে জায়গা ক্রয় করে বসতবাড়ী ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন। পরে তাদেরকে নোটিশ দেয়া হলে তারা তা আমলে নেননি। এমনকি নিয়ম না মেনে তারা বসতবাড়ী করেছেন সীমানা প্রাচীর দিয়ে। এগুলো সম্পূর্ণ ঝুঁকিপূর্ণ ও বেআইনী। ইসলামপুর থেকে অভিযান শুরু হয়েছে এখন থেকে ক্রমান্বয়ে সিলেটে এ অভিযান অব্যাগত থাকবে।

অভিযান সংশ্লিষ্ট জালালাবাদ গ্যাসের এক কর্মকর্তা জানান, গ্যাস নিরাপত্তা আইনে রয়েছে উচ্চ চাপ বিশিষ্ট গ্যাস পাইপলাইনের উভয় পাশে নূন্যতম ১০ ফুট করে মোট ২০ ফুটের মধ্যে কোন ধরণের স্থাপনা নির্মাণ করা বিধি বর্হিভূত। এছাড়া সরকারের অগ্রধিকার প্রকল্প শেখ মুজিব হাইটেক পার্কে গ্যাস সরবরাহের কাজ চলমান। সেজন্য দেবপুর-কুমারগাঁও উচ্চ চাপ গ্যাস পাইপলাইনের পাশাপাশি আরও একটি উচ্চ গ্যাস পাইপলাইনের কাজ শুরু হতে যাচ্ছে। এ উচ্ছেদ অভিযান নিয়মিত অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

সিলেট ভিউ ২৪ ডটকম/পিটি-৮

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *