সিলেটে কুস্তি না খেলায় লাথি-উষ্ঠায় প্রাণ গেলো কিশোরের!

মোট পড়া হয়েছে 125 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্কঃ

সিলেট নগরীতে কুস্তি খেলায় রাজি না হওয়ায় ১৪ বছরের এক কিশোরকে লাথি ও কিল-ঘুষি দিয়ে প্রাণে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। ওই কিশোর সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (২৩ নভেম্বর) মারা যান।

পুলিশ জানায়, শনিবার (২১ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে সিলেট নগরীর এয়ারপোর্ট থানাধীন পশ্চিম পীরমহল্লায় মো. শিরন মিয়ার ছেলে মো. লিটন মিয়া (১৪)-কে একই এলাকার কালাম আহমেদের ছেলে মো. রাহুল পারভেজ (২০) কুস্তি খেলার প্রস্তাব দেয়। এতে লিটন রাজি না হওয়ায় রাহুল ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং লিটনকে লাথি ও কিল-ঘুষি মারতে থাকে। এসময় প্রতিবেশিরা রাহুলের কবল থেকে লিটনকে উদ্ধার করে বাসায় পাঠান।

এদিকে, বাসায় গিয়ে লিটন অসুস্থ হয়ে পড়লে পরদিন তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তৃতীয় তলার ১১ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (২৩ নভেম্বর) ৯টার দিকে লিটন মারা যায়।

এ ঘটনায় লিটনের পিতা মো. শিরন মিয়া বাদি হয়ে সোমবার এসএমপির এয়ারপোর্ট থানায় মামলা (নং-৫৫) দায়ের করেছেন।

অপরদিকে, অভিযুক্ত মো. রাহুল পারভেজকে ধরতে পুলিশ চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) বিএম আশরাফ উল্লাহ তাহের। লিটনের মৃত্যুর পর থেকে পারভেজ পলাতক রয়েছে বলে তিনি জানান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *