বয়স ৬০! নাজমুল হাসান পাপনকে ক্রিকেট ছাড়তে বলেছেন চিকিৎসকরা

মোট পড়া হয়েছে 182 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্কঃ

দেশের একটি শীর্ষস্থানীয় করপোরেট হাউসের বড় কর্তা তিনি। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতিও। বিসিবির স্বাভাবিক কর্মকাণ্ডের বাইরে নাজমুল হাসান একটু বেশিই জড়িয়ে যান মাঠের ক্রিকেটের সঙ্গেও। দল নির্বাচন, একাদশ নির্বাচন, ব্যাটিং অর্ডার, এমনকি টস জিতে বাংলাদেশ ব্যাটিং না বোলিং, নাজমুল হাসান সেসব নিয়েও না ভেবে থাকতে পারেন না। দল খারাপ করলে অসন্তোষ লুকাতে পারেন না। বোর্ড প্রধান হয়েও সমালোচনামুখর হয়ে ওঠেন ক্রিকেটারদের নিয়ে।

কিন্তু এভাবে আর কত! বয়স ৬০ হয়ে গেছে। এই বয়সে যত উত্তেজনা, ততই ক্ষতি। চিকিৎসকেরা তাই পরামর্শ দিয়েছেন, নাজমুল হাসান যেন ক্রিকেট থেকে দূরে থাকেন। এই চাপ এখন আর আগের মতো নেওয়াটা তাঁর স্বাস্থ্যের জন্যই ঠিক হবে না। আজ রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে বিসিবির বার্ষিক সাধারণ সভা শেষে বিসিবি সভাপতি নিজেই বলছিলেন, ‘ডাক্তারদের দিক থেকে আমাকে বারবার বলা হয়েছে যে ক্রিকেট থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব দূরে সরে যেতে। বোর্ডে থাকলেও অন্তত এই জিনিসগুলো যেন না করি। মাঝখানে এক বছর আমি এটার সঙ্গে ছিলাম না, ভালোই ছিলাম। কিন্তু এখন আবার টের পাচ্ছি, অনেক সময় নিয়ে নিচ্ছে ক্রিকেট।’

বিসিবির প্রধানের দায়িত্ব যে ব্যক্তিগত জীবনে এতটা প্রভাব ফেলবে, তা নাজমুল হাসানেরও জানা ছিল না। তিনি বলছিলেন, ‘আমার একটা খারাপ দিক হলো বাংলাদেশ হারলে আমি মেনে নিতে পারি না। বাংলাদেশ হারলে অনেক মেজাজ খারাপ হয়। আমার বউ-বাচ্চা কেউ আমার সামনে আসে না। এতটা খারাপ লাগে…। এটা আসলে অনেক বেশি সময় নিয়ে নিচ্ছে, যা নিয়ে আমার আগে ধারণা ছিল না।’

মাঝের এক বছর নাজমুল হাসান মাঠের ক্রিকেটীয় সিদ্ধান্তের সঙ্গে একটু কমই সম্পৃক্ত ছিলেন। সম্প্রতি আবার সেটা বাড়িয়েছেন। আর তাতেই নাকি চাপ বাড়ছে নিজের ওপর, ‘ক্রিকেটটা অনেক বেশি সময় নিয়ে নিচ্ছে। জালাল (বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস) ভাই গিয়েছিলেন নিউজিল্যান্ড, (বিসিবি পরিচালক আহমেদ সাজ্জাদুল আলম) ববি ভাই গেলেন জিম্বাবুয়ে; ওনারা জানেন। সব সময় খেলা তো দেখেছিই, এর বাইরেও সার্বক্ষণিক খোঁজখবর নিয়েছি। সবার খোঁজ নেওয়া, দল নিয়ে কথা বলা—আসলে এসব অনেক সময় নিয়ে নিচ্ছে আমার।’

২০১৭ সালে দ্বিতীয় দফায় বিসিবির সভাপতি নির্বাচিত হন নাজমুল হাসান, যার মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে আগামী মাসেই। এর আগে আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে হওয়ার কথা বোর্ড সভা, যেখানে নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা। বাতাসে যদিও গুঞ্জন আছে, নাজমুল হাসান আরও এক মেয়াদে বোর্ড সভাপতি হিসেবে থেকে যাবেন, কিন্তু আজ তাঁর কথায় পাওয়া গেল অন্য সুর, ‘সামনের বোর্ড সভার পর আপনারা একটু ভিন্নতা পাবেন। অন্যান্যবারের মতো নয়। আমি এটাই প্রস্তাব করব (তিনি বোর্ড সভাপতি থাকতে চান না)। তবে জানি না, এটা গ্রহণযোগ্য হবে কি না।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *