বিয়ানীবাজারের কন্যা নায়িকা সালওয়া বখাটেদের খপ্পরে, অতঃপর রক্ষা পেলেন যেভাবে

মোট পড়া হয়েছে 220 

বিয়ানীবাজারের ডাক ডেস্কঃ

বাবা-মাকে নিয়ে কেরানীগঞ্জ থেকে ঢাকায় ফিরছিলেন। হঠাৎ বখাটেদের খপ্পরে পড়েন অভিনেত্রী নিশাত নাওয়ার সালওয়া। উপায় না পেয়ে জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল দেন তিনি। তার সাহায্য প্রার্থনার খবর শুনে ছুটে আসে পুলিশ। আটক করে বখাটেদের। পরে জানা যায়, আটক ব্যক্তিরা সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের সদস্য।

২৫ আগস্ট দিনগত রাতে নিজের ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে এ তথ্য জানান তিনি। তার আহ্বানে সময়মতো ছুটে এসে রক্ষা করায় ৯৯৯ সেবার প্রতি ধন্যবাদও প্রকাশ করেছেন তিনি।

সালওয়া লেখেন, ‘অসংখ্য ধন্যবাদ রইলো 999 National Emergency Service ও বাংলাদেশ পুলিশের প্রতি। তাদের তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণের ফলে আমি ও আমার পরিবার আজ বিপদের হাত থেকে উদ্ধার হলাম।’

‘আজ রাত ৮টার সময় কেরানীগঞ্জ থেকে ঢাকায় ফিরছিলাম আমার ব্যক্তিগত গাড়িতে। সঙ্গে আমার আম্মু-আব্বু ছিলেন। হঠাৎ রোহিতপুর এর কাছাকাছি নিরিবিলি একটি স্থানে আসলে চারটি বাইকে করে ৪/৫ জন বখাটে ছেলে আমাদের গাড়ির গতিরোধ করে। তার মধ্যে একটি ছেলে নিজেকে কেরানীগঞ্জ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি দাবি করে (যা সম্পূর্ণ বনোয়াট)। তারা এগিয়ে এসে ড্রাইভারকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল শুরু করে এবং বলতে থাকে যে, তাদের বাইকের সঙ্গে আমাদের গাড়ির ধাক্কা লেগেছে।’

‘সেরকম কিছুই আসলে হয়নি। একপর্যায়ে তারা ড্রাইভারকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে হ্যারাসমেন্ট করতে থাকে। তারা মূলত একটি সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্র যারা প্রায়শই পথ আটকে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে অর্থ আদায় ও নানাভাবে হেনস্তা করে থাকে। আমি তৎক্ষণাৎ 999-এ কল করে বিস্তারিত ঘটনা জানাই। ৫ মিনিটের মধ্যে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের দায়িত্বরত ফোর্স ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে অপরাধীদের আটক করে থানায় নিয়ে যান। যথাসময়ে পুলিশ উপস্থিত না হলে যে কোনো দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারতো।’

‘বাংলাদেশের একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে আজ আমি যে সেবা পেয়েছি তাতে আমি সত্যিই অভিভূত ও কৃতজ্ঞ। শুভকামনা রইলো জনগণের নিরাপত্তায় নিয়োজিত সব সদস্যের প্রতি। আশা করছি, জনগণের বিপদে এভাবেই বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সর্বদা পাশে থাকবে।’

সালওয়া মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের একজন প্র‍তিযোগী হিসেবে শোবিজে পা রাখেন। এরপর তিনি কাজ করেছেন অনেক নাটকে। বর্তমানে সিনেমাতেও কাজ করছেন তিনি। সালওয়ার বাড়ী সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলায়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *