কনে সাজাতে দেরি হওয়ায় বর-কনেপক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১২

পটুয়াখালীতে এক বিয়েবাড়িতে বর ও কনে পক্ষের মধ্যে তুলকালাম ঘটনা ঘটেছে। শ্বশুরবাড়ি থেকে কনেকে সাজাতে দেরি করায় লাঠিসোটা নিয়ে বর ও কনে পক্ষের মধ্যে ঘটে যাওয়া এ সংঘর্ষে আহত হয়েছেন অন্তত ১২ জন।

শুক্রবার (৪ জুন) বিকেলে রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের মধুখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন  ৭ মার্চের অনুষ্ঠানে ‘লুঙ্গি ড্যান্স’ গানে পুলিশের উদ্দাম নাচ! ভিডিও ভাইরাল

স্থানীয়রা জানান, দুই সপ্তাহ আগে উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের মধুখালী গ্রামের আব্দুর রহমান ফকিরের ছেলে সাহেবের সাথে পার্শ্ববর্তী মৌডুবী ইউনিয়নের মাঝের গ্রামের মোরশেদ হাওলাদারের মেয়ের বিয়ে হয়। গত বুধবার বরপক্ষ এসে কনেকে শ্বশুরবাড়িতে নিয়ে যায় । দুইদিন পর শুক্রবার কনেপক্ষের লোকজন বরের বাড়িতে কনেকে আনতে যান।

আরও পড়ুন  কনের ইচ্ছায় মাত্র এক টাকা দেনমোহরে বিয়ের দৃষ্টান্ত!

বিকেলে খাবার শেষে কনেকে সাজাতে দেরি করা নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয়পক্ষের ১২ জন আহত হন। পরে নিজেদের মধ্যে মীমাংসার পর বর ও কনেকে নিয়ে বাড়ি ফিরে যায় কনে পক্ষের লোকজনেরা।
রাঙ্গাবালী থানার ওসি দেওয়ান জগলুল হাসান জানান, কোনও পক্ষই থানায় অভিযোগ করেনি। আমরা পরবর্তীতে খোঁজ নিয়ে জেনেছি স্বামী-স্ত্রীকে নিয়ে গেছেন কন্যাপক্ষ।

 

সৌজন্যে : বিডি প্রতিদিন

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.